মঙ্গলবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১২ ১৪২৬   ০১ রজব ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় জগো বাহিনীর প্রধানের ফাঁসি, ১১ জনের যাবজ্জীবন এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ করোনামুক্ত: আইইডিসিআর লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে থেকে দায়িত্ব পালন করতে বললেন রাষ্ট্রপতি নাঈমুল আবরার হত্যা : ৪ আসামিকে গ্রেফতারের নির্দেশ আইন মেনেই বিদেশি কম্পানিকে এদেশে ব্যবসা করতে হবে- প্রধান বিচারপতি অপ্রাপ্তবয়স্ক চার কোটি নাগরিককে এনআইডি দেবে ইসি বাকি এক হাজার কোটি টাকা তিন মাসের মধ্যে দিতে গ্রামীণফোনকে নির্দেশ পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী
১১০

আজ টুইন টাওয়ার ধ্বংসযজ্ঞের সেই দিন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

আজ থেকে উনিশ বছর আগে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর এই দিনে গোটা বিশ্ব আঁতকে উঠেছিলো ভিডিও দেখে। ১৯ জন আত্নঘাতী হামলাকারী বহনকারী ৪টি বিমান সোজা আছড়ে পড়লো আমেরিকার ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার বা টুইন টাওয়ারে। ৪টি বিমানের ২টির লক্ষ্য ছিলো নিউইয়র্কে অবস্থিত ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের উত্তর ও দক্ষিণ টাওয়ার। অন্য একটি আঘাত করে পেন্টাগনে, যেটির অবস্থান ওয়াশিংটনের ঠিক বাইরে। আর চতুর্থটি আছড়ে পড়ে পেনসিলভানিয়ার একটি মাঠে।

টুইন টাওয়ারে হামলায় মারা যান ২৯৯৬ জন, ৬ হাজারেরও বেশি গুরুতর জখম হন। যাদের মধ্যে ৪শর বেশি ছিলেন পুলিশ ও অগ্নিনির্বাপণ কর্মী।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের সকাল বেলার আবহাওয়া ছিলো চমৎকার। মানুষ কর্মস্থলের দিকে যাচ্ছিলেন। সকাল ৮:৪৫ মিনিটে আমেরিকান এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৬৭ বিমানটি প্রায় ২০ হাজার গ্যালন জেট ফুয়েল নিয়ে বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্র বা ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের নর্থটাওয়ারের ১১০ তলা ভবনের ৮০ তলায় আঘাত করে। সুদৃশ্য ভবনটি মুহূর্তে ধ্বংসস্থুপে পরিনত হয়। মারা যায় কয়েকশ মানুষ।

এরপরের ঘটনাওগুলোও সবার জানা। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত করে আল কায়দা-লাদেনকে নির্মুল করতে আফগানিস্তানে হামলা করলো আমেরিকা। তাতে জঙ্গির চেয়ে বেশি মরলো সাধারণ মানুষ। এর অনেক পরে মরলেন একজন লাদেনও। এবপর আরও লাদেনের জন্ম হলো। টিকে রইলো আল কায়দা, জন্ম নিলো আইএসসহ বিভিন্ন নানের নামের জঙ্গি সংগঠন। তারা মেতে রইলো পুরনো ধ্বংসলীলায়।  হায় ১১ সেপ্টেম্বর ২০০১। ওই একটা দিন যেনো বদলে দিলো গোটা বিশ্বকে।

এই বিভাগের আরো খবর