• শুক্রবার   ১০ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৬ ১৪২৬

  • || ১৬ শা'বান ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ নিয়োগ পেলেন নতুন আইজিপি বেনজীর, র‌্যাব মহাপরিচালক মামুন মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি যারা সাহায্য চাইতে পারবে না তাদের তালিকা করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী দেশে করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত বেড়ে ১৬৪ কারাগারে বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ আদালতে বঙ্গবন্ধু হত্যা: আত্মস্বীকৃত খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ গ্রেফতার চিকিৎসকরা কেন চিকিৎসা দেবে না, এটা খুব দুঃখজনক : প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ রমজানে সরকারি অফিস ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান ঘরে বসে পড়াশোনা করতে হবে, শিক্ষার্থীদের প্রধানমন্ত্রী
৭৬

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসছে নতুন চমক

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

কেন্দ্রীয় সম্মেলনের ২ মাস বাকি থাকলেও সম্পন্ন হয়নি আওয়ামী লীগের ৭৮টি জেলা ও মহানগরী ইউনিটের মধ্যে ৭৭টির সম্মেলন। এমন পরিস্থিতিতে প্রশ্ন উঠেছে ডিসেম্বরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনের ব্যাপারে।
তবে শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে নেতারা বলেছেন, সম্মেলন উপলক্ষে নতুন উদ্যোমে সাংগঠনিক তৎপরতা শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। এবারের সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ব আসছে বলেও ইঙ্গিত দেন তারা। আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ সব কমিটির সম্মেলন সম্পন্ন করতেও নির্দেশ দিয়েছে হাইকমান্ড।
২০১৬ সালের অক্টোবরে অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন। এরপর পুরো সময়ে সম্পন্ন হয়েছে মাত্র একটি জেলা ইউনিটের সম্মেলন।
দলের হাইকমান্ড থেকে নির্দেশ এসেছে, মূল সম্মেলনের আগে ডিসেম্বরের প্রথম ভাগেই মেয়াদোত্তীর্ণ সব ইউনিটের সম্মেলন সম্পন্ন করতে হবে।
চ্যালেঞ্জিং হলেও, নির্ধারিত সময়ে এ কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব বলে জানালেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।
তিনি বলেন, জেলা থেকে আসা কাউন্সিলরদের লিস্টটাই আমাদের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি আগামী ২ মাসের মধ্যেই আমরা সব লিস্ট তৈরি করে ফেলতে পারব। এ ছাড়াও যে সমস্যাগুলো আছে সেগুলোও সমাধান হয়ে যাবে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল করতে এসব কোনো বাধাই নয়। সম্মেলন সফল করতে এরই মধ্যে ৮ ভাগে ভাগ হয়ে দেশব্যাপী সাংগঠনিক সফর শুরু করেছে দলটি। বিভিন্ন উপ-কমিটি গঠন করে আগামী সপ্তাহের মধ্যেই গঠন করা হবে সম্মেলনের সবগুলো প্রস্তুতি কমিটি। আওয়ামী লীগের এ নীতি নির্ধারক বলছেন, নির্বাচনসহ নানা কারণে সাংগঠনিক স্থবিরতা বিপরীতে নতুন চমক থাকবে এবারের সম্মেলনে।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দলকে চাঙা করতে হলে মেধাবী ও তরুণ নেতৃত্ব প্রয়োজন। আমাদের নেত্রী সেটিকে মাথায় রেখেই এগুচ্ছেন। তিনি সংসদেও নতুনদের সুযোগ দিয়েছেন, দলকে চাঙা করতে আগামীতেও অনেক নতুন মুখকে সমানে নিয়ে আসবেন। কার হাতে দলটি ছেড়ে দিয়ে যাবেন, এটিই এখন নেত্রীর চাওয়া। 
কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় অক্টোবরে সম্মেলন করার কথা থাকলেও ডিসেম্বরের ২১ থেকে ২২ তারিখ কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত নেয় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ।

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর