রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কুমার শানুর জন্মদিন আজ ২০২১ সাল নাগাদ সব ডিজিটাল সেবা আরও সহজ হবে: জয় ফাদার রিগনের মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিকেলে যুবলীগ নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক অখ্যাত মায়োর্কার মাঠে রিয়ালের প্রথম হার টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত শ্রমিকের স্বার্থে কাজ করছে সরকার: শ্রম প্রতিমন্ত্রী যুবলীগ থেকে বহিষ্কার কাউন্সিলর রাজীব টেকনাফে পৃথক অভিযানে ইয়াবাসহ ৩ রোহিঙ্গা আটক রাজীবের মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান পরিচালনা করছে র‌্যাব অস্ত্র ও মাদকসহ রাজীবকে আটক করেছে র‌্যাব কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজিব গ্রেফতার আসছে ‘জলের গান’র অ্যালবাম, থাকছে বারী সিদ্দিকীর গান বছর শেষ হলেই বাতিল হচ্ছে ২ হাজার রুপির নোট ঢাকায় আসছেন নিউইয়র্ক সিটির ৫ সিনেটর বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত দাইয়ুস জান্নাতে যাবে না ড্রাগনের রক্ত বয়ে চলেছে যে গাছ! বালিশকাণ্ডের মতো কলঙ্কজনক কাজ যেন না হয় :পরিকল্পনামন্ত্রী দলে অনুপ্রবেশকারীদের জায়গা দেওয়া হবে না: নাসিম
১৭

অজুহাতে কাজ আটকে রাখলে কঠোর ব্যবস্থা: গণপূর্তমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

কোনো অজুহাতে কাজ আটকে রাখলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

তিনি বলেছেন, ‘মন্ত্রণালয় এবং এর আওতাধীন দফতর-সংস্থার কোনো কর্মকাণ্ডে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটানো যাবে না। নিয়মের বাইরে কোনো নথি উপস্থাপন করা যাবে না। ব্যত্যয় হলে যে কর্মকর্তার মাধ্যমে নথি এসেছে, তিনি এর জন্য দায়ী হবেন। এ ব্যাপারে অত্যন্ত সচেতন থাকতে হবে। প্রত্যেকটি নথি যত্ন নিয়ে দেখতে হবে। আইন ও নিয়মের ব্যত্যয় ঘটালে সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা দেওয়া হবে।’

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এপিডি) অন্তর্ভুক্ত উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর আগস্ট মাসের অগ্রগতি সভায় সভাপতির বক্তব্যে মন্ত্রণালয় এবং আওতাধীন দফতর-সংস্থার কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, কোনো অজুহাতে কাজ আটকে রাখা যাবে না। নিয়ম ও বিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। গতানুগতিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। মন্ত্রণালয়ের ইমেজ পুনরুদ্ধারে যা যা করা লাগে, সবকিছু করতে হবে। সব কর্মকাণ্ডের ভেতরে স্বচ্ছতা, জবাবদিহি এবং নিয়মানুবর্তিতাকে শতভাগ অনুসরণ করতে হবে।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, সুশাসন প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত ও পদক্ষেপ সবাই প্রশংসা করছেন। নিজেদের কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলে তা সংশোধন করুন। আমি নিজের কাজের ভুলত্রুটি উপলব্ধি করার চেষ্টা করি। অপনাদেরও সে বিষয়টি কঠিনভাবে ধারণ করতে হবে।

দফতর-সংস্থা প্রধানদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নিজেদের দফতরকে দক্ষতার সঙ্গে ব্যবস্থাপনা করতে হবে। সবাইকে আস্থায় আনতে হবে। দায়বদ্ধতা ও স্বচ্ছতা নিয়ে কাজ করতে হবে। কোনোভাবে নিজ প্রতিষ্ঠান, দফতর-সংস্থা ও মন্ত্রণালয়কে হেয় প্রতিপন্ন করা যাবে না।

এরপর এডিপি সভার আগে দফতর-সংস্থার বিভিন্ন ব্যবস্থাগ্রহণমূলক কার্যক্রম লিখিতভাবে মন্ত্রণালয়কে অবহিত করার জন্য দফতর-সংস্থা প্রধানদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার, অতিরিক্ত সচিব ড. মো. আফজাল হোসেন ও মো. ইয়াকুব আলী পাটওয়ারীসহ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দফতর-সংস্থা প্রধান, বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এবং পরিকল্পনা কমিশন ও পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর